আজ- সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Email *

শিরোনাম

  Empathy, Patriotism & Commitment Group: একটু বিশ্লেষণ       বৃক্ষ রোপণের ৭ তারকা ও ১ শিল্পী       ‘পরিবর্তন চাই’ এর চার বছর       নামে কী বা আসে যায়       লৌহজং ‘সামাজিক আন্দোলন’ – আমার সুখ স্মৃতি       `একাত্তরের জননী’র সন্তানেরা       মনোয়ারাঃ সক্ষম সন্তানদের মরতে বসা মা       নদী-খাল উদ্ধারে সফল, সফলতার পথে এবং সম্ভাব্য অভিযান       মাছের পেটের রড থেকে গরাদঘরে       পাবনায় নৌ-র‌্যালিঃ নদী উদ্ধারে নতুন উদ্ভাবন       আক্রান্ত সিটিজেন জার্নালিজম       দক্ষিণাঞ্চলে দুই সপ্তাহব্যাপী নিম্নচাপঃ উদ্ভাবন ও সিটিজেন জার্নালিজম বিব্রত       আইনজীবীর হৃৎকম্পে কাঁপছে দেশ       পাবলিক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রতিচ্ছবি       জনশক্তিতে উদ্ভাবন       ফেইসবুক, বাংলাদেশ সরকার এবং রাজার ঘণ্টা       অধ্যক্ষ অনিমেষ ও সোশাল মিডিয়া       জনবান্ধব স্বাস্থ্যসেবায় সোশ্যাল মিডিয়া ও প্রথা ভাঙ্গার গল্প       শিয়ালের কামড় থেকে সোশাল মিডিয়ার কামড়       সোশাল মিডিয়া ইনোভেশন এ্যাওয়ার্ডের ১ বছর ১ মাস    

‘নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন’ এর টি-টোয়েন্টি ম্যাচ

ধান গবেষণা কেন্দ্র, জয়দেবপুর, গাজীপুরে সাড়ে ৩ ঘন্টার কর্মশালায় নিজে কথা বলে, অংশগ্রহণকারীদের বেশী বলতে দিয়ে, ছোট্ট দুটো গ্রুপ ওয়ার্ক করিয়ে আর গোটা চারেক ভিডিও ক্লিপ দেখিয়ে ‘নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন’ বোঝানোর চেষ্টা করলাম। ঠিক সাড়ে তিন ঘন্টাও না পৌনে ৩ ঘন্টা আসলে।

নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন’ এর ৫ দিনের প্রশিক্ষণ কর্মশালা যদি ক্রিকেটের টেস্ট ম্যাচ হয় তাহলে ২ দিনের কর্মশালা ওয়ান ডে ম্যাচ আর সাড়ে ৩ ঘন্টার এই কর্মশালাকে বলতে হবে টি-টোয়েন্টি। উদাহরণটা মনেহয় ঠিক হলো না, টি-টোয়েন্টিতে কম সময়ে রেজাল্ট পাওয়া যায় আর উত্তেজনাও থাকে প্রচুর। তো ৫ দিনের প্রশিক্ষণ কর্মশালা যদি এক প্যাকেট বিরিয়ানি হয় তবে ২ দিনের কর্মশালা ১ বাটি আর কয়েক ঘন্টার এই কর্মশালাকে ১ টেবিল চামুচের বেশী বলা যাবে না। এর মাঝে আমাদের স্বভাবগত দেরী আর উদ্বোধন পর্বের আনুষ্ঠানিকতায় বিরিয়ানি ১ টেবিল চামুচ থেকে ১ চা চামুচে গিয়ে দাঁড়ালো। ডিজি মহোদয় প্রায় অর্ধেকটা সময় ও ডাইরেক্টরদ্বয় পুরো সময় মনোযোগী অংশগ্রহণকারী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ও শাখা থেকে আগত বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাগণের চোখ মুখ দেখে মনে হলো ‘নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন’ এর বিরিয়ানিতে পেট না ভরলেও স্বাদটা বুঝেছেন।

বিদায়ের সময় ডিজি মহোদয় মজা করে বললেন এই ধরণের আয়োজনে – আমার অফিসে আমাকেই প্রধান অতিথি হতে হয়, সভাপতিত্ব করেন চিফ ইনোভেশন অফিসার। এটি উদ্দেশ্যমূলক নাকি ভুলক্রমে সেটা নীতি নির্ধারকরা বলতে পারবেন। সেজন্যই লিখলাম।

Categories: প্রশিক্ষন