আজ- সোমবার, ১৬ই জুলাই, ২০১৮ ইং, ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Email *

শিরোনাম

  বৃক্ষ রোপণের ৭ তারকা ও ১ শিল্পী       ‘পরিবর্তন চাই’ এর চার বছর       নামে কী বা আসে যায়       লৌহজং ‘সামাজিক আন্দোলন’ – আমার সুখ স্মৃতি       `একাত্তরের জননী’র সন্তানেরা       মনোয়ারাঃ সক্ষম সন্তানদের মরতে বসা মা       নদী-খাল উদ্ধারে সফল, সফলতার পথে এবং সম্ভাব্য অভিযান       মাছের পেটের রড থেকে গরাদঘরে       পাবনায় নৌ-র‌্যালিঃ নদী উদ্ধারে নতুন উদ্ভাবন       আক্রান্ত সিটিজেন জার্নালিজম       দক্ষিণাঞ্চলে দুই সপ্তাহব্যাপী নিম্নচাপঃ উদ্ভাবন ও সিটিজেন জার্নালিজম বিব্রত       আইনজীবীর হৃৎকম্পে কাঁপছে দেশ       পাবলিক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রতিচ্ছবি       জনশক্তিতে উদ্ভাবন       ফেইসবুক, বাংলাদেশ সরকার এবং রাজার ঘণ্টা       অধ্যক্ষ অনিমেষ ও সোশাল মিডিয়া       জনবান্ধব স্বাস্থ্যসেবায় সোশ্যাল মিডিয়া ও প্রথা ভাঙ্গার গল্প       শিয়ালের কামড় থেকে সোশাল মিডিয়ার কামড়       সোশাল মিডিয়া ইনোভেশন এ্যাওয়ার্ডের ১ বছর ১ মাস       দেশের প্রথম ‘স্টুডেন্ট কমিউনিটি পুলিশিং’ সম্মেলন    

‘পরিবর্তন চাই’ এর চার বছর

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী একদল পরিবর্তনকামী মানুষের উদ্যোগে ‘পরিবর্তন চাই’ এর যাত্রা শুরু যা সকল অন্যায়, অসুন্দর আর আবর্জনার বিপরীতে সত্য, সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার একটি প্রয়াস। পৃথিবী পরিবর্তনশীল। এই পরিবর্তন চাইতে হয় না। কিন্তু মানুষের অভ্যাস ও মানসিকতার পরিবর্তন চাইতে হয়। তাই সত্য, সুন্দর ও পরিচ্ছন্নতার জন্য আমরা ‘পরিবর্তন চাই’।

‘পরিবর্তন চাই’ এর  লক্ষ্য
সকল অন্যায়, অসুন্দর, আবর্জনার বিরুদ্ধে সত্য, সুন্দর ও পরিচ্ছন্নতার আন্দোলনকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই ‘পরিবর্তন চাই’ এর লক্ষ্য।

 ‘পরিবর্তন চাই’ এর উদ্দেশ্য সমূহ
১. দেশের সাধারণ মানুষের চিন্তা ভাবনা ও মানসিকতায় ইতিবাচক পরিবর্তন আনা।
২. সমাজের অসঙ্গতি ও অসামঞ্জস্য দূরীকরণে প্রান্তিক পর্যায় থেকে সর্বস্তরে বিভিন্ন কর্মসূচী বাস্তবায়নের মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধি ও সমাধানে ভূমিকা রাখা।
৩. দেশের ইতিবাচক পরিবর্তনের লক্ষ্যে তরুণ সমাজকে সংগঠিত করা এবং তাদের নিয়ে পরিবেশ, পরিচ্ছন্নতা ও বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে গঠনমূলক কাজের প্রতি আগ্রহী করে তোলা।
৪. দেশের সমস্যাবলী শনাক্তকরণ ও সমাধান এর জন্য কর্মীদের উদ্বুদ্ধ করা এবং নিয়মিত সেমিনার, পাঠচক্র, ও কর্মশালার আয়োজন করা।
৫. বিভিন্ন গবেষণা প্রকল্প গ্রহণ করা এবং এই গবেষণা সমূহের ফল নিয়মিতভাবে দেশের জনগণ ও নীতি নির্ধারকদের কাছে তুলে ধরা।
৬. দেশের বৃহত্তর স্বার্থে বিভিন্ন সামাজিক আন্দোলনের সূচনা করা এবং সংগঠনের উদ্দেশ্য ও আদর্শের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ন যে কোন আন্দোলনে সমর্থন দেয়া।
৭. দেশীয় ও আন্তর্জাতিক রাজনীতি, অর্থনীতি সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নিয়মিত অধ্যয়ন, আলোচনা ও ইতিবাচক পরিবর্তনের লক্ষ্যে কর্মসূচী গ্রহন করা।

২০১৪ এর কার্যক্রম

ক্রিকেটের স্বার্থে চলো হই একসাথে          ২৮ জানুয়ারী, শাহবাগ, ঢাকা।

সাগর-রুনি হত্যার বিচার চাই                ১১ ফেব্রুয়ারী, প্রেসক্লাব, ঢাকা।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-ঢাকা     ২১ ফেব্রুয়ারী, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ঢাকা।

দাও ফিরিয়ে মাঠ                               ১১ এপ্রিল, ধানমন্ডি, ঢাকা।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-ঢাকা     পহেলা বৈশাখ, ১৪২১, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-গাজীপুর ২৭ জুন, টঙ্গী, গাজীপুর।

আপনার পতাকা, আমার শীতের কাঁথা     ১৩ জুলাই, সারা বাংলাদেশ

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-খুলনা    ৩০ আগষ্ট, খুলনা।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-রংপুর    ২৭ সেপ্টেম্বর, রংপুর।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-বরিশাল ১ নভেম্বর, বরিশাল।

দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস ২০১৪       ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৪,  সারা বাংলাদেশ (অনিবার্য কারণে ৩ জানুয়ারী, ২০১৫, ৪৩টি জেলায় ২০,০০০ স্বেচ্ছাসেবকের অংশগ্রহণে পালিত হয়)

২০১৫ এর কার্যক্রম

সহিংসতা নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক           ৩১ জানুয়ারী, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ঢাকা।

চলুন ময়লাটা রাস্তায় না, ময়লার ঝুড়িতে ফেলি    ২১ ফেব্রুয়ারী, টিএসসি, ঢাকা।

‘আবর্জনা মুক্ত ক্যাম্পাস’                                ২১শে ফেব্রুয়ারি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ৫০ টি বিন বসানো হয়।

ডাস্টবিন স্থাপন ও দত্তক গ্রহীতাদের সংবর্ধনা       ৪ এপ্রিল, সাইক ইন্সটিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট এ্যান্ড টেকনোলজি ক্যাম্পাস, ঢাকা।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-রাজশাহী         ৮ আগষ্ট, রাজশাহী।

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-সিলেট           ১২ সেপ্টেম্বর, সিলেট

দেশটাকে পরিষ্কার করি অভিযান-চট্টগ্রাম          ১৪ নভেম্বর, চট্টগ্রাম

২০১৬ এর কার্যক্রম

বুট ক্যাম্প ২০১৬
‘পরিবর্তন চাই’ এর উদ্যোগে ‘দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস ২০১৬’ উপলক্ষে একটি বুটক্যাম্পের আয়োজন করা হয় ডুমনি, ঢাকার ‘পথিক বিরতি ঘর’ এ। এই বুটক্যাম্পে দেশের প্রতিটি জেলা থেকে ২ জন এবং বিভাগীয় জেলা থেকে ৪ জন করে প্রায় দেড়শো তরুণ/তরুণী অংশগ্রহণ করেন। ২১ জানুয়ারি থেকে ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত এ বুটক্যাম্পে দিবসটির আয়োজন নিয়ে এবং পরিবর্তন চাই এর ২০১৬ সালের অন্যান্য অভিযান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস ২০১৬
সিদ্ধান্ত হয় প্রতি বছর ফেব্রুয়ারী মাসের প্রথম শনিবার ‘দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস’ পালিত হবে। সে হিসাবে ২০১৬ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী দেশের ৬৪টি জেলার ও কিছু উপজেলার মোট ১০০টি স্থানে ৭০,০০০ এর অধিক পরিবর্তনকামী স্বেচ্ছাসেবক এ অভিযানে অংশগ্রহন করেন। এই আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে অ্যাকশন এইড বাংলাদেশ, কিউবি, পে-পয়েন্ট, সূর্যমুখী, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক।

বরিশালের জেলখাল পুনরুদ্ধার অভিযান ২০১৬
৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ বরিশাল মহানগরীর  ভিতর দিয়ে প্রবাহিত ৩ কিলোমিটার দীর্ঘ মৃতপ্রায় জেলখাল পুনরুদ্ধারের শ্লোগান ছিল ‘জনগণের জেলখাল আমাদের পরিচ্ছন্নতা অভিযান’। সরকারীভাবে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নদী খাল উদ্ধারের প্রথম উদ্যোগ এটি। ‘পরিবর্তন চাইপ্রায় ৩০,০০০ হাজার মানুষের’ এই মহাযজ্ঞে সহ আয়োজকের ভূমিকায় ছিল। জেলখাল পুনরুদ্ধার অভিযান দেশে বিদেশে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। পরবর্তীতে দেশের আরো কয়েকটি জেলায় অনুরূপ অভিযান পরিচালিত হয় যেমন, টাঙ্গাইল, বাগেরহাট।

বন্যা নয় জিতবে মানবতা ২০১৬
নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার দূর্গম চর খরিবাড়ি ইউনিয়নের (ভারত সীমান্তের কাছাকাছি) প্রায় একশো পরিবারকে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। সিদ্ধান্ত ছিলো ৫০০০ টাকা করে কুড়িটি পরিবারকে সাহায্য করার কিন্তু পরিস্থিতি দেখে প্রথমে ২০০০, মাঝে ১০০০ এবং শেষে ৫০০ টাকা করে দেয়া হয়। পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতি ক্ষেত্রেই পরিবারের বয়স্ক মহিলা সদস্যার হাতে অর্থ তুলে দেয়া হয়েছে। প্রত্যেকের নাম এবং যোগাযোগের নম্বর নেয়া হয়েছে যেন পরবর্তীতে আবারও তাঁদের সাথে যোগাযোগ করা যায়।

লৌহজং নদী পুনরুদ্ধার অভিযান ২০১৬
২৯ নভেম্বর, ২০১৬ তারিখ টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন ও সিটিজেন জার্নালিস্টদের উদ্যোগে লৌহজং নদী পুনরুদ্ধার অভিযানে শামিল হয় ‘পরিবর্তন চাই’। বরিশালের জেলখাল অভিযানে সহ আয়োজকের ভূমিকায় থাকার কারণে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন ‘পরিবর্তন চাই’কে আমন্ত্রণ জানায়। উদ্ধার কার্যক্রমে ‘পরিবর্তন চাই’ এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ রাজশাহী, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ এর  সদস্যরা অংশগ্রহন করে।

২০১৭ এর কার্যক্রম

‘শর্ট এন্ড ক্লিন’ শর্টফিল্ম প্রতিযোগিতা
‘শর্ট এন্ড ক্লিন’ নামে একটি শর্টফিল্ম প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সেখানে সারাদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ৬২টি শর্টফিল্ম জমা পড়ে। সম্মানিত বিচারকগনের রায় এবং ইউটিউব ভিউয়ের উপর ভিত্তি করে ৫টি সেরা শর্টফিল্মকে পুরস্কৃত করা হয়।”

বুট ক্যাম্প ২০১৭
‘পরিবর্তন চাই’এর উদ্যোগে ‘দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস ২০১৭’ উপলক্ষে একটি বুটক্যাম্পের আয়োজন করা হয় ডুমনি, ঢাকার  ‘পথিক বিরতি ঘর’ এ। অত্যন্ত উৎসবমূখর পরিবেশে এ বুটক্যাম্পে সারাদেশ থেকে দুই শতাধিক তরুণ তরুণী অংশগ্রহণ করেন। ১৯ জানুয়ারি থেকে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত এ বুটক্যাম্পে দিবসটির আয়োজন নিয়ে এবং ‘পরিবর্তন চাই’ এর ২০১৭ সালের অন্যান্য অভিযান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআ্ই প্রোগ্রামের ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট জনাব মানিক মাহমুদ প্রথমে ঘোষনা দেন ‘পরিবর্তন চাই’ এর ৬৪ জেলার কমান্ডারকে ফেসবুকের ‘সিটিজেন জার্নালিজম বাংলাদেশ’ গ্রুপে সদস্য করার।

দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস ২০১৭
এ বছর ৪ ফেব্রুয়ারী দিবসটি পালন করা হয়। এদিন ঢাকাসহ দেশের সব জেলা শহরের ও কিছু উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থান সমূহ পরিষ্কার করেছে প্রায় এক লক্ষ ১০ হাজার তরুণ স্বেচ্ছাসেবী। এদেশের ইতিহাসে পরিচ্ছন্নতার জন্য একসাথে এতো মানুষ কখনো নামেনি। ‘সারাদেশে ডাস্টবিন চাই পরিবর্তন করি, পরিবর্তন চাই’ স্লোগানকে সামনে রেখে সারাদেশে ডাস্টবিনের পর্যাপ্ততা নিশ্চিত করা এবং ডাস্টবিন ব্যবহার ও রক্ষণাবেক্ষণে গনসচেতনতা ও গনসম্পৃক্ততা নিশ্চিত করার দাবীতে তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হয় ‘দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস’। দেশের সবার মধ্যে পরিবেশ সচেতনতা বাড়ানো ও বাংলাদেশের পরিবেশ ক্যালেন্ডারে এই দিবসটিকে উপহার দেবার এই আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে অ্যাকশন এইড বাংলাদেশ, আইপিডিসি, কিউবি, পে-পয়েন্ট এবং বিজিএমইএ।

কেন্দ্রীয় সমাপনী অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয় মিরপুর ১০ নাম্বারে ফায়ার সার্ভিস এবং সিভিল ডিফেন্স মাঠে। সে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন অধ্যাপক অাব্দুল্লাহ অাবু সায়ীদ, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, এভারেস্ট বিজয়ী বাংলাদেশী নিশাত মজুমদার, ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সে’এর মহাপরিচালক ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল আলী আহাম্মেদ খান সহ আরো অনেকে। প্রধান অতিথি অধ্যাপক সায়ীদ বলেন, পরিষ্কার করতে হবে কেবল কোনো বিশেষ দিনে নয়,  প্রতিদিনই, কেবল কোন বিশেষ রাস্তায় নয়, সব জায়গায়। তবু সবার সামনে একটু প্রতীক থাকতে হয়। ‘দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস’ হলো তেমনি একটি প্রতীক। স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, যারা এ অভিযানগুলোতে অংশ নিয়েছেন, যারা দেশকে নিয়ে ভাবেন, দেশের জন্য রাস্তায় নামতে দ্বিধা করেন না, তারা এ প্রজন্মের মুক্তিযোদ্ধা।

সবুজ ঢাকা গড়ি
সবুজ ঢাকা গ‌ড়ি – মিরপুর অ‌ভিযান‌টি ১৫ জানুয়ারী মিরপুর ১১ নাম্বা‌রের মিরপুর বাংলা স্কুল এ্যান্ড ক‌লেজে শুরু হ‌য়। এতে অংশ নেন ‘পরিবর্তন চাই’ এর চেয়ারম্যান ফিদা হক, উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক এবং ‘পরিবর্তন চাই’ এর  উপদেষ্টা স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন।

সারাবছর ধরে রামকৃষ্ণ মিশন সড়ক পরিচ্ছন্ন রাখার কর্মসূচী ‘সবুজ ঢাকা গড়ি – রামকৃষ্ণ মিশন রোড এর কার্য্যক্রম শুরু হয় ৩০ জানুয়ারী। পরিবর্তন চাই, স্ফুরণ এবং আরো কয়েকটি সামাজিক সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে অংশ নিয়েছেন এলাকাবাসী এবং স্থানীয় স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা। ঢাকা দক্ষিনের মাননীয় মেয়র সাঈদ খোকন এবং রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ এ অভিযানের উদ্বোধন করেন।

ভৈরব নদ উদ্ধার অভিযান ২০১৭

২০ এপ্রিল, ২০১৭ বাগেরহাট জেলা প্রশাসন ও পৌরসভার উদ্যোগে ভৈরব নদ উদ্ধার কার্যক্রমে ‘পরিবর্তন চাই’ এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় কর্মীরা অংশগ্রহন করে। ভবিষ্যতেও পাবনা, বরগুনা, রংপুর, বগুড়া, গাইবান্ধা যে কোনো জেলা প্রশাসনের পরিবেশ ও পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক কার্যক্রমে ‘পরিবর্তন চাই’ অংশগ্রহন করবে।

সবুজ ইশকুল গড়ি ২০১৭
১০ আগষ্ট ২০১৭, স্বামীবাগের মিতালী বিদ্যাপীঠে ‘সবুজ ইশকুল গড়ি’ অভিযান শুরু হয়েছে। এ অভিযানের উদ্বোধন করেন ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাইদ খোকন। ‘পরিবর্তন চাই’ এর চেয়ারম্যান ফিদা হক জানান, ময়লার ধরণ অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন ডাস্টবিন ব্যবহার স্কুলের বাচ্চাদের শেখানো এই অভিযানের প্রধান লক্ষ্য। ‘১০০ সবুজ ইশকুল গড়ি’ অভিযানের অংশ হিসেবে স্কুলগুলোতে তিন রঙ্গের ডাস্টবিন দেয়া হবে। পাশাপাশি স্কুল আঙ্গিনায় একটি কম্পোষ্ট প্ল্যান্ট স্থাপন করা হবে যেখানে স্কুলের ছাত্ররা পচনশীল ময়লা দিয়ে কম্পোষ্ট সার তৈরী করবে। সে সার দিয়ে স্কুল আঙ্গিনায় ফুলের বাগান করা হবে। এছাড়া স্কুলের মাঠে ঘাস লাগানো, বাগান পরিচর্যা করা এবং স্কুলের দেয়াল রঙ করা হবে। বছরব্যাপী অভিযানের শেষে সফল স্কুলগুলোকে ‘সবুজ ইশকুল’ সার্টিফিকেট দেয়া হবে। মিতালী বিদ্যাপীঠ এর এই অভিযানে ‘স্ফূরণ’ নামে একটি সংগঠন সহায়তা করছে। মিতালী বিদ্যাপীঠ সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় মোট ৫টি স্কুলে ‘১০০ সবুজ ইশকুল গড়ি’র আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, বাংলাদেশ।

৯ অক্টোবর, ২০১৭। মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এর পৃষ্ঠপোষকতায় পল্লবী মাজেদুল ইসলাম মডেল হাই স্কুল এ শুরু হয়েছে ‘সবুজ ইশকুল গড়ি’ প্রকল্প। মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এর পৃষ্ঠপোষকতায় পল্লবী মাজেদুল ইসলাম মডেল হাই স্কুল এ শুরু হচ্ছে ‘সবুজ ইশকুল গড়ি’ প্রকল্প। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোবাশ্বের হোসেন,স্থপতি; আযম খা্‌ন, গ্রুপ চীফ কমিউনিকেশন অফিসার, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক; সামিয়া চৌধুরী, এসিট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং ডেপুটি হেড উপস্থিত ছিলেন। এই প্রকল্পের উদ্বোধন উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের মাঝে ”আমার স্বপ্নে আমার সবুজ ইশকুল” নামে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং উক্ত অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

বন্যা নয় জিতবে মানবতা ২০১৭
‘পরিবর্তন চাই’ এর পক্ষ থেকে গত ২৪ আগষ্ট, ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দ তারিখ লালমনিরহাট জেলার বন্যা দূর্গত কালীগঞ্জ উপজেলার শৈলমারী ইউনিয়নের ১৬৫টি পরিবারকে (১,৬৫,০০০ টাকা)ও  হাড়িসর ইউনিয়নের ১১৯টি পরিবারকে( ১,১৯,০০০ টাকা) এবং হাতীবান্ধা উপজেলার গুড্ডিমারী ইউনিয়নের ২০৯টি পরিবারকে (২,৭০,০০০ টাকা) নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। ‘পরিবর্তন চাই’ এর কর্মীরা এলাকাগুলোতে ঘুরে ঘুরে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরী করেছিল এবং সংগঠনের চেয়ারম্যান ফিদা হকের উপস্থিতিতে এই কর্মযজ্ঞ সুসম্পন্ন হয়। Discovery Tours and Logistics, BUET 85-92 Club, Ex Cadets Forum, ধ্রুব কন্সট্রাকশনস এবং অগুনিত দাতা সংগঠন এবং ব্যক্তি বন্যা নয়, জিতবে মানবতা ২০১৭ ক্যাম্পেইনে মুক্তহাতে দান করেন।

২৯ আগষ্ট বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলার বন্যা দূর্গত ৫০টি পরিবারকে নগদ অর্থ (পঞ্চাশ হাজার টাকা), ১১ অক্টোবর কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ৭৪ টি পরিবারকে নগদ অর্থ (সাতাশি হাজার টাকা, ৫টি সেলাই মেশিন, ওরস্যালাইন, চিড়া, মুড়ি, পুরনো কাপড় ১৩ অক্টোবর দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলায় ১০০টি পরিবারকে নগদ অর্থ (এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা), ছাতা, চিড়া, ম্যালামাইনের প্লেট-গ্লাস, ১৪ অক্টোবর রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলার ১২৭টি পরিবারকে নগদ অর্থ (এক লক্ষ নব্বই হাজার পাঁচশত টাকা), বিস্কুট, ৫টি সেলাই মেশিন, পুরনো কাপড়, নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার ৭৩টি পরিবারকে নগদ অর্থ(এক লক্ষ নয় হাজার পাঁচশত টাকা), পুরনো কাপড়, বিস্কুট, মুড়ি এবং নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলার বন্যা দূর্গত ১০০টি পরিবারকে নগদ অর্থ (দেড় লক্ষ টাকা)ও মুড়ি ‘পরিবর্তন চাই’ এর পক্ষ থেকে ও ঢাকা ইউনিভার্সিটি এ্যালামনাই এসোসিয়েশন, রাজশাহী ইউনিভার্সিটি এ্যালামনাই এসোসিয়েশন, প্রতীতি, bangla-sydney.com এবং চিটাগাং গ্রামার স্কুল এর সহযোগিতায় বিতরণ করা হয়। এসময় ‘পরিবর্তন চাই’ এর চেয়ারম্যান জনাব ফিদা হক, রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক আতিকুর রহমান লাবু, রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়ক আলমাজি তুর্য, রাজশাহী জেলা কমান্ডার সাইফুল ইসলাম, সৈয়দপুর জেলা কমান্ডার নাইমুল ইসলাম নয়ন, লালমনিরহাট জেলা কমান্ডার পদক রহমান, কুড়িগ্রাম জেলা কমান্ডার শান্ত পাটোয়ারী, ছাড়াও ‘পরিবর্তন চাই’ এর সদস্য হাবিব, উলফাৎ, সনেট, রকি, আশিক, আমজাদ উপস্থিত ছিলেন।

পরিমিত ব্যবহার বিষয়ক প্পচারণা
ইউএনডিপির সহযোগিতায় এ্যাকশন এইড বাংলাদেশ এর সাথে ‘পরিবর্তন চাই’ এই ক্যাম্পেইন বাস্তবায়ন করছে। এই উদ্দেশ্যে গত ১৬ অক্টোবর ডিজাইন ওয়ার্কশপ এবং ২৩ অক্টোবর ডিজাইন স্কোপিং ও মোবাইল এ্যাপ ইন্ট্রোডাকশন ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়। গুলশান, বনানী, বসুন্ধরা এলাকার ৫টি রেস্টুরেন্ট, ৫টি স্কুল, ১০টি বাড়ি এবং ঢাকার ৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ক্যাম্পেইন কাজ করবে। ৮ মাসব্যপী প্রজেক্টের মেয়াদ সেপ্টেম্বর/২০১৭ থেকে এপ্রিল/২০১৮ পর্যন্ত।

সেভ ব্রিকেট, সেভ ইয়ুথ
১৮ নভেম্বর, ২০১৭ তারিখ “ক্রিকেট বেটিং এর কালো ছায়ায় যুবসমাজ: বাস্তবতা ও আমাদের করণীয়” শীর্ষক সেমিনার ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্টার্স এসোসিয়েশন’, ‘পরিবর্তন চাই’, সাবেক বেসিস সভাপতি ফাহিম মাশরুর কর্তৃক ক্রিকেট বেটিং নিয়ে সচেতনতা তৈরীর উদ্দেশ্যে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

বুট ক্যাম্প ২০১৮
১১ জানুয়ারি থেকে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র, সাভারে তৃতীয় বুটক্যাম্পে সারাদেশ থেকে প্রায় দুইশো তরুণ তরুণী অংশগ্রহণ করেন।বুটক্যাম্পে দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস আয়োজন ও অন্যান্য কর্মকান্ড নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

শীত নয় জিতবে মানবতা
রংপুর বিভাগের লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার শৈলমারি ও ভোটমারি এলাকার দরিদ্র শীতার্ত মানুষদের মাঝে ৪০০ কম্বল বিতরণ করে হয় ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮। পরেরদিন ২০ জানুয়ারি সৈয়দপুরের খালিশা বেলপুকুর ও শাহপাড়া গ্রামে বিতরণ করা হয় আরও ৪০০ কম্বল। এই উদ্যোগে সহযোগিতা করেন Lucky13 Trust, Little Care সহ আরও অনেক ব্যাক্তিবর্গ।

সবুজ ইশকুল গড়ি ২০১৮

‘পরিবর্তন চাই’ এর উদ্যোগে ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এর পৃষ্ঠপোষকতায় ২১ এপ্রিল  ২০১৮, রাজধানী ঢাকার বাইরে প্রথম রংপুরের দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিশু নিকেতন উচ্চ বিদ্যালয় ও হলি চাইল্ড পাবলিক স্কুলে। রংপুর পুলিশ কমিউনিটি হলে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। বিশেষ অতিথি ছিলেন কর্নেল নেয়ামুল ফাতেমী, বীর প্রতিক। সভাপতিত্ব করেন ‘পরিবর্তন চাই’ এর চেয়ারম্যান ফিদা হক।  দুই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে ”আমার স্বপ্নে আমার ইশকুল” নামে চিত্রাংকন ও মডেল তৈরী প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং উক্ত অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার প্রদান করা হয়। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

‘পরিবর্তন চাই’ এর উদ্যোগে ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এর পৃষ্ঠপোষকতায় 2৬ এপ্রিল  ২০১8, মিরপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকায় ‘সবুজ ইশকুল গড়ি’ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, পরিচালক (মাধ্যমিক), মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর। স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আর সভাপতিত্ব করেন ‘পরিবর্তন চাই’ এর চেয়ারম্যান ফিদা হক। অন্যান্য কার্য্ক্রমের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মাঝে আয়োজিত ”আমার স্বপ্নে আমার ইশকুল” চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

সম্মাননা অর্জন
১৪ নভেম্বর, ২০১৫ বাংলাদেশ ব্লাড ডোনারস ফোরাম পরিচ্ছন্ন পরিবেশ ও জনসচেতনতা তৈরীতে বিশেষ অবদানের জন্য ‘পরিবর্তন চাই’ কে সম্মাননা স্মারক প্রদান করে চট্টগ্রামে।

২৯ নভেম্বর, ২০১৬ লৌহজং পুনরুদ্ধার অভিযানে অংশগ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসক, টাঙ্গাইল কর্তৃক ‘পরিবর্তন চাই’ কে ডিও লেটার প্রদান করা হয়।

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ তারিখ সমাজ সেবায় বিশেষ অবদান রাখার জন্য ‘পরিবর্তন চাই’ এর  চেয়ারম্যান জনাব ফিদা হক কে শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদ থেকে শেরে-বাংলা গোল্ড মেডেল-২০১৭ প্রদান করা হয়।

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ তারিখ ধানমন্ডির রাশিয়ান কালচারাল সেন্টারে Citizens’ Open Forum (COF) থেকে পরিবর্তন চাই এর চেয়ারম্যান ফিদা হককে সামাজিক উন্নয়নে এবং পরিবর্তনের ধারায় অগ্রগামী হিসেবে COF Inspiration Awards 2017 প্রদান করে।

Categories: কার্যক্রম