আজ- শনিবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
Email *

শিরোনাম

  বৃক্ষ রোপণের ৭ তারকা ও ১ শিল্পী       ‘পরিবর্তন চাই’ এর চার বছর       নামে কী বা আসে যায়       লৌহজং ‘সামাজিক আন্দোলন’ – আমার সুখ স্মৃতি       `একাত্তরের জননী’র সন্তানেরা       মনোয়ারাঃ সক্ষম সন্তানদের মরতে বসা মা       নদী-খাল উদ্ধারে সফল, সফলতার পথে এবং সম্ভাব্য অভিযান       মাছের পেটের রড থেকে গরাদঘরে       পাবনায় নৌ-র‌্যালিঃ নদী উদ্ধারে নতুন উদ্ভাবন       বন্যার্তদের জন্য দান নয় ঋণ শোধের আয়োজন       আক্রান্ত সিটিজেন জার্নালিজম       দক্ষিণাঞ্চলে দুই সপ্তাহব্যাপী নিম্নচাপঃ উদ্ভাবন ও সিটিজেন জার্নালিজম বিব্রত       আইনজীবীর হৃৎকম্পে কাঁপছে দেশ       পাবলিক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রতিচ্ছবি       জনশক্তিতে উদ্ভাবন       ফেইসবুক, বাংলাদেশ সরকার এবং রাজার ঘণ্টা       অধ্যক্ষ অনিমেষ ও সোশাল মিডিয়া       জনবান্ধব স্বাস্থ্যসেবায় সোশ্যাল মিডিয়া ও প্রথা ভাঙ্গার গল্প       শিয়ালের কামড় থেকে সোশাল মিডিয়ার কামড়       সোশাল মিডিয়া ইনোভেশন এ্যাওয়ার্ডের ১ বছর ১ মাস    

জনশক্তিতে উদ্ভাবন

আজ জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর শুধু জনশক্তি বিষয়ক কিছু উদ্ভাবনী উদ্যোগের কথা বলবো বলে লেখার শিরোনাম ‘জনশক্তিতে উদ্ভাবন’। আমাদের দেশে প্রায় সবকিছুই শুধু রাজধানী কেন্দ্রিক হওয়ায় মানুষের নানারকম ভোগান্তি হয়। আমার মনেহয় বিকেন্দ্রীকরণ ইনোভেশনের আকাঙ্খিত জগতে প্রবেশের প্রথম পদক্ষেপ হতে পারে। এভাবে শুরু করে আমরা পরবর্তী ইনোভেটিভ পদক্ষেপগুলোর জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে পারি।

ফিঙ্গার প্রিন্ট কার্যক্রম বিকেন্দ্রীকরণ
প্রবাস গমণেচ্ছুক কর্মীদের বিএমইটি (ব্যুরো অফ ম্যানপাওয়ার এমপ্লয়মেন্ট এ্যান্ড ট্রেইনিং) থেকে বহির্গমন ছাড়পত্র দেবার জন্য ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে স্মার্টকার্ড প্রদানের কাজটি শুধু ঢাকায় হতো বিধায় সারা দেশের চাপ সামলাতে হিমসিম খেতে হতো। আমি ডিজি হিসাবে যোগদান করেই বিকেন্দ্রীকরণের উদ্যোগ নিয়েছি। প্রথমে চট্টগ্রাম, পরে সিলেট, তারপর কুমিল্লা ও কক্সবাজার, এরপর এখন সারাদেশে ফিঙ্গারপ্রিন্ট গ্রহণ সেবা ছড়িয়ে দেবার কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বর্তমানে ঢাকা ছাড়াও আরও ২৫ টি জেলায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট নেয়া হচ্ছে। বিএমইটির এক ধরণের বিকেন্দ্রীকরণ উদ্যোগ ২০০৫ সালে নেয়া হয়েছিল যার স্থায়িত্ব ছিল মাত্র এক মাস। এবারের উদ্যোগ স্থায়ী হবে কারণ বিকেন্দ্রীকরণের এই ইনোভেশনটি হুট করে করা হয়নি। আমি বিএমইটিতে ডিজি হিসাবে যোগদানের পূর্বে এখানে ডাইরেক্টর ও এডিজির দায়িত্ব পালন করেছি অনেক বছর। এই প্রতিষ্ঠানের শক্তি, সমস্যা, ঝুঁকি, সম্ভাবনা সবই আমার জানা।

ফিঙ্গারপ্রিন্টের জন্য একজন কর্মীকে ঢাকায় আসতে যেতে কমপক্ষে ১-৩ দিন সময় লাগে এবং ২-৩ হাজার টাকা খরচ হয়। নিজ জেলায় ফিঙ্গারপ্রিন্টের জন্য আসতে যেতে কয়েক ঘন্টা বা ১ বেলা থেকে ১ দিন সময় আর ১০০-৫০০ টাকার বেশী অর্থ খরচ হবার কথা নয়। অর্থাৎ ভিজিট না কমলেও খরচ প্রায় ৮৪% এবং সময় প্রায় ৬৬% হ্রাস পাবে।

স্মার্ট কার্ড/বহির্মগন ছাড়পত্র প্রদান বিকেন্দ্রীকরণ
শুধু ফিঙ্গারপ্রিন্টের বিকেন্দ্রীকরণই নয়, স্মার্টকার্ডের বিকেন্দ্রীকরণও করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই বহির্গমন ছাড়পত্র বিকেন্দ্রীকরণে যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে চট্টগ্রাম থেকে স্মার্ট কার্ড ও এনওসি প্রদান শুরু হয়েছে। এর ফলে চট্টগ্রাম ও পার্শ্ববর্তী জেলা সমূহের মানুষকে আর ঢাকা আসতে হচ্ছে না। পর্যায়ক্রমে সকল বিভাগ ও জেলা এই কর্মসূচির আওতায় আসবে।

ওয়ান স্টপ সার্ভিস
দক্ষ বা আধাদক্ষ ক্যাটাগরীতে ব্যক্তিগতভাবে ভিসা সংগ্রহকারী কর্মীগণ এখন রিক্রুটিং এজেন্সির দ্বারস্থ না হয়ে সরাসরি সেলফ ক্যাটাগরীতে one Stop service এর মাধ্যমে একদিনেই বহির্গমন ছাড়পত্র পেতে পারেন । প্রতিদিন বর্তমানে গডে প্রায় তিন হাজার বিদেশগামী কর্মীকে একদিনেই ছাড়পত্র দেয়া হচ্ছে। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও বিএমইটির নিরলস প্রচেষ্টায় বিগত বছরেরর তুলনায় চলতি বছরে প্রায় ০২ লক্ষাধিক বেশী কর্মী অর্থাৎ প্রায় ০৮ লক্ষ কর্মী বিদেশ গমন করবে বলে আশা করা যাচ্ছে

গণশুনানী
জনসেবা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে বিএমইটি’র আরেকটি উদ্যোগ। গত ৩১ অক্টোবর ২০১৬, জনশক্তি কর্মসংস্হান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) এর ইমিগ্রেশন উইং সেবা প্রত্যাশীসহ সকল স্টেকহোল্ডারদের জন্য “গণশুণানীর” আয়োজন করে । ব্যতিক্রমী এ আয়োজন বিএমইটিতে এটিই প্রথম এবং একটি নব অধ্যায়ের সূচনা। মহাপরিচালক, অতিরিক্ত মহাপরিচালক, পরিচালক বহির্গমন সহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা কর্মচারীর উপস্থিতিতে খোলামেলা আলোচনা ও তাৎক্ষণিকভাবে অনেক সমস্যার সমাধান দেয়া হয়। উপস্থিত শত শত মানুষ “গণশুণানীতে” স্বত:স্ফূর্তভাবে অংশ নেন। এখন থেকে প্রতিমাসের শেষ সোমবার বহির্গমন উইং এ “গণশুনানী” অনুষ্ঠিত হবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অস্থায়ী কার্যালয় স্থাপন
ব্রাহ্মণবাড়িয়া একটি প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা। কিন্তু এখানে বিএমইটির জেলা অফিস না থাকায় কুমিল্লা অফিসের মাধ্যমে এই জেলার কর্মকান্ড পরিচালিত হয়। এতে এই জেলার জনগণের সময়, যাতায়াত ও অর্থের অপচয় হয়। এজন্য কুমিল্লা অফিসের বিদ্যমান জনবল দিয়েই সপ্তাহে ২ দিন জেলা প্রশাসকের কার্যালয় , ব্রাহ্মনবাড়িয়ার অস্থায়ী অফিস পরিচালনার ব্যাবস্থা করা হয়েছে।

মোবাইল এ্যাপসের মাধ্যমে ভিসা যাচাই
৬টি দেশের ভিসা অনলাইনে যাচাই করার কাজটি সহজে করার জন্য জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস বগুড়ার সহকারী পরিচালক একটি এ্যান্ড্রয়েড মোবাইল এ্যাপ্লিকেশন তৈরী করে গুগল প্লে স্টোরে আপলোড করেছেন যার সুবিধা ইতোমধ্যে ৫০০০০+ সেবাগ্রহীতা ডাউনলোড করে গ্রহণ করেছেন। এটুআই এর প্রশিক্ষণ লব্ধ জ্ঞানে, উৎসাহে এবং অর্থ সাহায্যে এখন পর্যন্ত যে কয়টি মোবাইল এ্যাপ তেরী হয়েছে তার কোনোটিই এতো জনপ্রিয়তা পায়নি বা এতো বেশী ব্যবহৃত হয়নি। ইতোমধ্যে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য এই এ্যাপের কন্টেন্টগুলো নিয়ে একটি রঙ্গিন ম্যানুয়াল/পুস্তিকা প্রকাশের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

গুগল ম্যাপসে সকল সরকারী অফিস
না, এটি শুধুই জনশক্তি সংশ্লিষ্ট নয়, দেশে বিদেশের আপামর জনগণের সাথে সম্পর্কিত। জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, বগুড়ার সহকারী পরিচালক, মোঃ আতিকুর রহমান ‘ভিসা যাচাই’ এ্যাপের পাশাপাশি এটিও স্বার্থকভাবে পাইলটিং করে বগুড়ার সরকারী অফিসগুলোকে গুগল ম্যাপসে যুক্ত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্য সচিব মহোদয় ইতোমধ্যেই দেশের সকল সরকারী অফিস গুগল ম্যাপসে যুক্ত করতে এটুআইকে নির্দেশও দিয়েছেন। শুধু প্রবাস গমণেচ্ছুক কর্মী নয় সকলকেই যে কোনো সরকারী অফিস সহজে খুঁজে পেতে এটি দারুনভাবে সাহায্য করবে। ইতোমধ্যে কেবিনেট ডিভিশনের সংস্কার ও সমন্বয় সচিব মহোদয়কে গুগল ম্যাপসে সরকারী অফিস যোগ করার ম্যানুয়াল ও ভিডিও টিউটোরিয়াল তৈরী করে দেখানো হয়েছে। আইডিয়াটি এখন কেবিনেট ডিভিশন কর্তৃক সারা দেশে রেপ্লিকেটিং এর অপেক্ষায় আছে।

কুড়িগ্রাম কর্মসূচি
অনগ্রসর জেলা কুড়িগ্রামের নারী পুরুষ কর্মীদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে বাংলাদেশের ইউনাইটেড এক্সপোর্ট লিঃ ও সৌদি আরবের বৃহৎ কোম্পানী ফ্যালকন গ্রুপ এর সাথে পিপিপি মডেলে “কুড়িগ্রাম কর্মসূচি” নামে একটি কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। মূল বিষয়টি হলো বৈদেশিক কর্মসংস্থানের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন। পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ এর মাধ্যমে এটি বাস্তবায়িত হবে। মধ্যস্বত্বভোগী দালালদের দৌরাত্ম হ্রাসে এই উদ্ববনের যুগান্তকারী ভূমিকা রাখার সম্ভাবনা আছে। সম্পূর্ণ বিনা খরচে মহিলা গৃহকর্মী সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে প্রেরণের কাজটি এখন ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো করছে। একাজে তারা মহিলা গৃহকর্মী সংগ্রহের কাজটি করে দালালদের মাধ্যমে। বিনা খরচে বিদেশে যাবার সুযোগ থাকলেও দালালরা খরচ নিয়েই ছাড়ে। শুধু তাই নয় বেতন ও অন্যান্য সুবিধা বাড়িয়ে বলেও কর্মীদের সাথে প্রতারণা করার অভিযোগ প্রায়ই পাওয়া যায়। বিদেশে যেতে অনেক মহিলাই ভয় পান নিরাপত্তা ও অত্যাচারিত হবার কথা ভেবে। দূর্ঘটনা তো ঘটেই। তবে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নানাবিধ তৎপরতার কারণে দূর্ঘটনার ঘটনা দিন দিন কমছে। দূর্ঘটনা নির্মূল করার জন্য কুড়িগ্রাম কর্মসূচিতে অভিনব ব্যবস্থা সংযোজন করা হয়েছে। প্রত্যেক মহিলা গৃহকর্মীর একজন পুরুষ আত্মীয়কেও সংশ্লিষ্ট দেশে কর্মী হিসেবে প্রেরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে যা মহিলা গৃহকর্মীদের নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা যায়। এই কর্মসূচির নাম কুড়িগ্রাম কর্মসূচি কেন এই প্রশ্ন উঠতে পারে। আসলে মঙ্গা পিড়িত কুড়িগ্রামে প্রথম এই কর্মসূচি উদ্ভেধন করা হয়েছে বলে এরূপ নামকরণ। এর অর্থ এই নয় যে, অন্য জেলার কর্মীরা এই সুবিধার আওতায় আসবে না। পর্যায়ক্রমে সারা দেশেই এটি বাস্তবায়িত হবে। এই উদ্ভাবনের মধ্যে নতুনত্ব হলো দালালদের দৌরাত্ম নির্মূল করার জন্য এখানে স্বনামধন্য স্থানীয় এনজিওগুলোকে যুক্ত করা হয়েছে। প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে কর্মী সংগ্রহের কাজটি এখানে এনজিও করবে। জব ফেয়ারে রিক্রুটিং এজেন্সির পাশাপাশি সৌদি আরব বা সংশ্লিষ্ট দেশের কাউন্টার পার্টও উপস্থিত থাকবে। জেলা প্রশাসন, জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, টিটিসি, এনজিও, রিক্রুটিং এজেন্সি, সৌদি কাউন্টার পার্ট ফ্যালকন গ্রুপ সবাই মিলে কর্মী বাছাই করবে। কাজেই এটি পিপিপি’র পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ ছাপিয়ে পিপিএফপি (পাবলিক প্রাইভেট ফরেন পার্টনারশিপ) অাদলে আরও বড় কিছু হয়ে উঠার সম্ভাবনা জাগাচ্ছে।

এই হতভাগা দেশটিকে যথাযথ জনশক্তি রপ্তানীর মাধ্যমে উন্নতির সেই অনন্য উচ্চতা সোনার বাংলায় নিয়ে যেতে আমরা বদ্ধ পরিকর। আশা করি জনপ্রশাসন ও জনগণ আমাদের পাশে থাকবে।

লেখকঃ মোঃ সেলিম রেজা, মহা-পরিচালক, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, ঢাকা।

Categories: আপনাদের লেখা